প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১

সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচি (এইচএসপি) পরিচিতি

নারী শিক্ষার সম্প্রসারণ ও গুণগত মান উন্নয়নের লক্ষ্যে ১৯৮২ সালে চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলায় একটি পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে ছাত্রীদের প্রথম নগদ সহায়তা (Cash Incentive) প্রদান কার্যক্রম শুরু হয় ১৯৯৪ সালে ফিমেল সেকেন্ডারি স্কুল এসিস্ট্যান্স প্রজেক্ট, মাধ্যমিক স্তরের ছাত্রীদের জন্য উপবৃত্তি প্রকল্প, মাধ্যমিক শিক্ষা উন্নয়ন প্রকল্প ও ফিমেল এডুকেশন স্টাইপেন্ড প্রজেক্ট- এই ৪টি প্রকল্পের মাধ্যমে উপজেলা পর্যায়ের সকল মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রী উপবৃত্তি কার্যক্রম চালু  হয়। উক্ত কর্মসূচির ফলে মাধ্যমিক স্তরে নারী শিক্ষার্থীর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পায়। ২০০২ সালে উচ্চ মাধ্যমিক উপবৃত্তি প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৭৯টি উপজেলায় উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে উপবৃত্তি কার্যক্রম চালু হয় ২০০৯ সালে দরিদ্র পরিবারের মেয়ে শিক্ষার্থীর পাশাপাশি  ছেলে শিক্ষার্থীকে একীভূত উপবৃত্তির আওতায় আনা হয়। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীন ৪টি উপবৃত্তি প্রকল্প: সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি এন্ড এ্যাকসেস ইনহান্সমেন্ট প্রজেক্ট (সেকায়েপ), সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (সেসিপ), মাধ্যমিক শিক্ষা উপবৃত্তি প্রজেক্ট (এসইএসপি) ও উচ্চ মাধ্যমিক উপবৃত্তি (এইচএসএসপি) কে নিয়ে একটি যুক্তিসংগত হারে ৬ষ্ঠ থেকে ১২শ শ্রেণি পর্যন্ত ন্যায়ানুগ সমতাভিত্তিক উপবৃত্তি প্রদানের নিমিত্তে “সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচি” গ্রহণ করা হয়, যা প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের মাধ্যমে বাস্তাবায়িত হচ্ছে।

 

  কর্মসূচির নাম:  “সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচি (এইচএসপি)”

        প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়/বিভাগমাধ্যমিক  উচ্চ শিক্ষা বিভাগশিক্ষা মন্ত্রণালয়

        বাস্তবায়নকালজুলাই-২০১৮ হতে জুন-২০২৩

        বাস্তবায়নকারী সংস্থা : প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট

        প্রাক্কলিত ব্যয়৮৭৪৪৮২.১৯ (আট হাজার সাতশত চুয়াল্লিশ কোটি বিরাশি লক্ষ উনিশ  হাজার টাকা)



Share with :

Facebook Facebook